যে সব খাদ্য বাড়াবে স্মৃতিশক্তি

২০ বছর বয়সী তরুণী মৌ। আজকাল পড়া মনে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে। বারবার চেষ্টা করার পরও কিছুতেই মনে থাকছে না পড়াগুলো।

২৮ বছরের যুবক আকাশ। সদ্য চাকরীতে ঢুকেছে। কিন্তু চাকরীক্ষেত্রে নানারকমের নানা তথ্য মনে রাখতে গিয়ে বেশ চাপের মধ্যে পড়েছে সে।

৫৮ বছর বয়সী সাদেক সাহেব ইদানীং প্রায়ই চশমাটা হারিয়ে ফেলছেন। কিছুতেই মনে পড়ে না চশমাটি শেষ কোথায় রেখেছিলেন।

মানুষের জীবনের নানা পর্যায়ই হতে পারে স্মৃতিভ্রম। অতিরিক্ত কাজের চাপে বা অলসতায় বা সঠিক খাবার না খাওয়ার কারণে আমাদের মস্তিষ্ক মাঝে মাঝেই বিদ্রোহ করে বসে। সে ঘোষণা দেয় আর কাজ করবে। আর কিছু সে মনে রাখবে না।

আজকের এই লেখার বিষয় মস্তিষ্কের সেই বিদ্রোহ সমাপ্ত করার উপায় নিয়ে। তবে জেনে নিন কীভাবে মস্তিষ্কের যত্ন নিতে হয় খাদ্যের সাহায্যে।

যেসব খাবারে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রভৃতি উপাদান আছে সেসব খাবার আমাদের মস্তিষ্কের জন্য খুবই উপকারী। এসব খাবার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রাখলে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বেড়ে যাবে অনেক গুণে।

আসুন জেনে নেওয়া যাক খাবারগুলো কী কী। গবেষণায় জানা গেছে ৫ ধরনের খাদ্য মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।

১। সবুজ শাকসবজি- পালংশাক, পুঁইশাক, ব্রকলি ইত্যাদি শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিকারী উপাদান রয়েছে যেমন- ভিটামিন কে, লুটিন, ফোলেট, এবং বিটা ক্যারোটিন। নানারকম শাকসবজি ও উদ্ভিদজাত খাদ্য স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

২। ভালো তেলযুক্ত মাছ- ভালো তেলযুক্ত মাছ ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের ভালো উৎস। যেমন- ইলিশ, রূপচাঁদা, ভেটকি, চন্দনা ইত্যাদি। গবেষণায় দেখা গেছে যে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড রক্তে বেটা-অ্যামাইলয়েডের হার কমায়। অ্যালঝাইমার আক্রান্ত রোগীদের মস্তিষ্কে যে অ্যামাইলয়েড প্লাক পাওয়া যায় বেটা-অ্যামাইলয়েড তার মূল উপাদান।

৩। বাদাম- বাদামে থাকা প্রোটিন, উৎকৃষ্ট তেল, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড মস্তিষ্কের জন্য খুবই উপকারী। প্রতিদিন বাদাম খেলে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা, চিন্তাশক্তি, স্মৃতিশক্তি, শেখার ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৪। রঙিন ফলমূল- রঙিন ফলমূলে পাওয়া যায় ফ্ল্যাভোনয়েড। এটি একটি প্রাকৃতিক রঞ্জক পদার্থ যা মস্তিষ্ককে দীর্ঘসময় সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। নানারকম আঙ্গুর, আপেল, কমলা, জাম্বুরা, জাম, টমেটো, আরও নানা রঙিন ফলে এই উপাদান প্রচুর পরিমাণে আছে।

৫। চা-কফি- চা-কফিতে থাকে ক্যাফেইন এবং ফ্ল্যাভোনয়েড। ক্যাফেইন মনোযোগ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এটি মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রেও সহায়ক।

আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যতালিকা একটু পরিবর্তন করেই আমরা আমাদের মস্তিষ্ককে করে তুলতে পারি তুখোড়। তাই খাদ্য ও পুষ্টি সম্পর্কে জানুন এবং অন্যকে জানান।

 

লেখক-
সৃজনী মণ্ডল
খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান বিভাগ

3,351 total views, 2 views today

Any opinion ..?

Posted by pushtibarta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *