সুস্বাদু গাজরের জাদুকরী কেক

গাজর দিয়ে কেক!  কিভাবে সম্ভব? গাজর তো একটা সবজি। জ্বী হ্যাঁ, ঠিকই দেখছেন। গাজর দিয়েই হবে মজাদার কেক। আর সাথে পাবেন গাজরের পুষ্টিও। তবে চলুন বানিয়ে ফেলি গাজরের কেক।

উপকরণ
ময়দা – ১ কাপ
ডিম – ৪ টি
গাজর – ১ কাপ
আধাভাঙ্গা গুঁড়ো করা বাদাম – ২ টেবিল চামচ
দুধের গুঁড়া – ২ টেবিল চামচ
গুঁড়ো করা চিনি – ১কাপ
লবন – ১/৪ চা চামচ
বেকিং পাউডার – ১ চা চামচ
দারচিনি গুঁড়া – ১ চা চামচ
ভ্যানিলা এসেন্স – ১/৪ চা চামচ
তেল – ১ কাপ অথবা মাখন – ২ টেবিল চামচ


প্রস্তুতপ্রণালী
১। প্রথমে একটি পরিষ্কার শুষ্ক পাত্রে ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে নিয়ে ভালভাবে ফেটে ফোম করে নিতে হবে।
২। এরপর একে একে ডিমের কুসুম, গুঁড়ো করে রাখা চিনি, লবণ, ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে নিতে হবে যেন পুরোপুরি মিশে যায়।
৩। এই পর্যায়ে ময়দা, দুধের গুঁড়া, বেকিং পাউডার, দারচিনি গুঁড়া একত্রে চেলে নিয়ে অল্প অল্প করে ভালভাবে মেশাতে হবে।
৪। সবশেষে গাজর, আধাভাঙ্গা গুঁড়ো করা বাদাম এবং তেল বা গলানো মাখন দিয়ে একসাথে ভালভাবে মিশিয়ে নিতে হবে।
৫। সবকিছু মেশানোর পর মিশ্রণটি একপাশে রেখে দিয়ে বেকিং এর জন্য পাত্র তৈরি করতে হবে।
৬। একটি বড় ঢাকনা যুক্ত পাত্র নিয়ে তার তলায় কিছু শুকনো বালু ঢেলে ঢাকনা আটকে চুলার আঁচ বাড়িয়ে ১০ মিনিট তাপ দিয়ে বেকিং এর জন্য পাত্র তৈরি করে নিতে হবে।
৭। এবারে একটি শুকনো কেক প্যানে সামান্য তেল বা মাখন নিয়ে প্যানের ভেতরে চারদিকে ভালভাবে মাখিয়ে নিয়ে বড় পাতিলটির ভেতরে ঢুকিয়ে ৫ মিনিট তাপ দিয়ে পাত্র তৈরি করে নিতে হবে। অতঃপর মিশ্রণটি প্যানে ঢেলে নিতে হবে।
৮। এবার প্যানটিকে সাবধানে বালুর উপর বসিয়ে বড় পাতিলের ঢাকনা আটকে দিতে হবে ভাল করে। ঢাকনায় কোন ফাঁকা বা বাতাস বের হওয়ার জায়গা থাকলে তা ভালভাবে আটকে দিতে হবে যেন কোন তাপ বের হতে না পারে।
৯। চুলার আঁচ কমিয়ে দিয়ে ৩০-৩৫ মিনিট তাপ দিতে হবে। এই সময়ের মধ্যে একবারও ঢাকনা সরানো যাবে না। ৩০-৩৫ মিনিট পর ঢাকনা উঠিয়ে দেখতে হবে কেক হয়েছে কিনা। এজন্য একটা সরু কাঠি নিয়ে কেকএ ঢুকিয়ে বের করে দেখতে হবে কাঠিতে কেক লেগে আছে কিনা। কেক লেগে থাকলে পুনরায় ১০-১৫ মিনিটের জন্য বেক করতে হবে।
১০। কেক হয়ে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে কেটে পরিবেশন করতে হবে। আরও বেশি স্বাদও সৌন্দর্যের জন্য কেকের উপর বাদাম কুঁচি কিংবা ক্রিম চিজ ছড়িয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

পুষ্টিগুণ
সাধারণত কেক জাঙ্কফুড বলে বিবেচনা করা হলেও গাজরের কেকএ আছে নানা পুষ্টিগুণ।
• প্রথমেই এতে রয়েছে গাজর, যা ভিটামিন এ এর উত্তম উৎস। গাজর আপনার চোখের সাথে ত্বকের স্বাস্থ্যেরও যত্ন নেবে।
• ডিম এবং দুধ থেকে পাচ্ছেন অতি প্রয়োজনীয় প্রোটিন ও মিনারেল।
• পাশাপাশি এতে রয়েছে বাদাম যা থেকে পাবেন প্রোটিন, ফাইবার, মিনারেল ও ফ্যাট ( ওমেগা ৩ ও ওমেগা ৬)।
অতএব রসনার সাথে সাথে এবার চলবে স্বাস্থ্য চর্চাও।

লেখক-

তাহসিনুল মোবাশ্বেরা
খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান বিভাগ

1,886 total views, 2 views today

Any opinion ..?

Posted by pushtibarta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *