কাঁচকলা, পুষ্টিগুণে অনন্য এক সবজি

কাঁচকলা আমাদের দেশের একটি সহজলভ্য খাবার। বার মাস-ই এটি পাওয়া যায়। সাধারণত কলা আমরা ফল হিসেবেই খেয়ে থাকি। কিন্তু, কাঁচকলা আমরা সবজি হিসেবেও খেয়ে থাকি। কাঁচকলা আমাদের শরীরের জন্য খুব-ই উপকারী। এর অনেক পুষ্টিগুণ রয়েছে। মানবদেহে পুষ্টি সরবরাহের পাশাপাশি এটি
আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এছাড়াও, কাঁচকলা ক্যালরিরও একটি ভাল উৎস। পাকা কলার তুলনায় কাঁচকলায় স্টার্চের পরিমাণ বেশি এবং চিনির পরিমাণ কম রয়েছে।  কাঁচকলা আমরা বিভিন্নভাবে খেয়ে থাকি। কাঁচকলার সুস্বাদু তরকারি আমাদের দেহের জন্য খুবই উপযোগী। এছাড়াও কাঁচকলা চিপস হিসেবেও খাওয়া যায়।

প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচকলায় বিদ্যমান পুষ্টি উপাদানগুলো হল –
১. কার্বোহাইড্রেট ——————- ১৫.৫ গ্রাম
২. প্রোটিন—————————-২.০ গ্রাম
৩. পানি——————————– ৬৫.৩ গ্রাম
৪. ফ্যাট———————————— ০.৩ গ্রাম
৫. খাদ্য আঁশ——————– ২.৩ গ্রাম

এছাড়াও রয়েছে–

ভিটামিন-
১.ভিটামিন-এ ———————– ৫৬ মাইক্রোগ্রাম
২. ভিটামিন ই————————– ০.১৪ মিলিগ্রাম
৩. ভিটামিন সি————- ১৮.৪ মিলিগ্রাম
৪. কোলিন—————- ১৩.৫মিলিগ্রাম
৫. নায়াসিন————— ০.৬৮ মিলিগ্রাম
৬. থায়ামিন————— ০.০৫২ মিলিগ্রাম
৭. রিবোফ্লাভিন ———————— ০.০৫৪মিলিগ্রাম

মিনারেল-
১. ক্যালসিয়াম ————- ৩ মিলিগ্রাম
২. আয়রন————— ০.৬ মিলিগ্রাম

৩. ম্যাগনেসিয়াম——— ৩৭ মিলিগ্রাম
৪. ফসফরাস —————- ৩৪ মিলিগ্রাম
৫. পটাসিয়াম ————— ৪৯৯ মিলিগ্রাম
৬. সোডিয়াম————–৪ মিলিগ্রাম
৭. জিংক ——————— ০.১৪ মিলিগ্রাম

একটি মাঝারি আকারের কাঁচকলায় ৭৭ কিলোক্যালরি শক্তি পাওয়া যায়।

কাঁচকলার উপকারিতা-

১। কাঁচকলা রক্তের শর্করার মাত্রা ঠিক রাখে। গবেষণায় পাওয়া গেছে কাঁচকলায় প্রচুর পরিমাণে আঁশ এবং ভিটামিন বি৬ রয়েছে। এটি রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা ঠিক রাখে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে।

২। কাঁচকলা ওজন কমাতে সাহায্য করে।

৩। হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। কাঁচকলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম। প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ গ্রহণ করলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। এক্ষেত্রে কাঁচকলা পটাশিয়ামের একটি ভালো উৎস।

৪। কাঁচকলা সহজে হজম হয়। আঁশযুক্ত খাবার হওয়ায় এটি পেটের ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে ডায়রিয়া প্রতিরোধ করে।

৫। কাঁচকলায় থাকে রেসিস্ট্যান্ট স্টার্চ যা ফ্যাটি লিভারের ঝুঁকি কমায়।

৬।  এর রেসিস্ট্যান্ট স্টার্চ দেহে শর্ট চেইন ফ্যাটি এসিড উৎপাদনের হার বাড়ায় যা ক্যালসিয়াম শোষণে সহায়ক।

৭। কাঁচকলায় থাকে প্রচুর ভিটামিন ও খনিজ লবণ যা দেহের বিপাক ক্রিয়া সঠিকভাবে চলতে সাহায্য করে ও ত্বক ও চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

 

লেখক-

হাবিবা জান্নাত হৈমু

খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান

সম্পাদক-

সৃজনী মণ্ডল

খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান

834 total views, 2 views today

Any opinion ..?

Posted by pushtibarta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *