তরল সোনা “জলপাই”

China's appetite for olive oil slowly growing as eating habits change - CGTN

জলপাই এর নাম শুনেই জিভে জল চলে আসে । মৌসুমী ফল জলপাই । বৈজ্ঞানিক নাম Olea europaea। আরব দেশে জয়তুন বা জলপাইকে Liquid Gold বা তরল সোনা নামে ডাকা হয়। জলপাই ফল এবং সবজি দু”ভাবেই ব্যবহৃত হয় । জলপাই এর আচার তুলনামূলক জনপ্রিয় হলেও পুষ্টির দিক বিবেচনায় কাঁচা জলপাই ই সেরা । স্বাস্থ্য সচেতন প্রতিটি মানুষের খাদ্য তালিকায় জলপাই থাকা উচিত। কারন কি? আসুন তাহলে জেনে নেই।

প্রতি ১০০ গ্রাম জলপাই এ পুষ্টি উপাদান ∶
শক্তি ∶ ১১৬ ক্যালরি
প্রোটিন∶ ০.৮ গ্রাম
ফ্যাট ∶ ১০.৭ গ্রাম
কার্বোহাইড্রেট∶ ৬.০৪ গ্রাম
আঁশ ∶ ৩.২ গ্রাম
ভিটামিন C ∶ ০.৯ মিলিগ্রা
সুগার ∶ ০ গ্রাম
পানি ∶ ৮০ %
সোডিয়াম ∶ ৭৩৫ মি.গ্রা

হৃদরোগ প্রতিরোধে ∶ জলপাই এ রয়েছে প্রচুর পরিমানে এন্টিঅক্সিডেন্ট যা খারাপ কোলেস্টেরলকে অক্সিডেশন হতে রক্ষা করে কোলেস্টেরল এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে হৃদরোগের ঝুকি হ্রাস পায় ।
ক্যান্সার প্রতিরোধে ∶ জলপাই এ বিদ্যমান ভিটামিন ই কোষের অস্বাভাবিক গঠনে বাঁধা দেয় । ফলে দেহে ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস পায় । গবেষনায় দেখা গেছে যে, নিয়মিত জলপাই তেল ব্যবহারে কোলন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমে।

10 Uses for Olives of All Kinds | Food Network Healthy Eats: Recipes,  Ideas, and Food News | Food Network

রোগ প্রতিরোধে ∶ জলপাই এ বিদ্যমান ভিটামিন সি ও খনিজ উপাদান জ্বর সর্দি সহ অন্যান্য রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে ।
কোষ্ঠকাঠিন্য দূরীকরণে ∶ জলপাই এর ত্বকে যে আঁশ আছে তা মানব দেহের রাসায়নিক ক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে এবং হজমে সহায়তা করে ।
ত্বক ও চুলের যত্নে ∶ জলপাই এ বিদ্যমান ফ্যাটি এসিড ও এন্টি অক্সিডেন্ট ত্বককে ফ্রি রেডিকেল এর হাত থেকে রক্ষা করে ও চুলকে সুন্দর রাখে ।
ওজন নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে ∶ জলপাই এ রয়েছে মনো-আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট যা ওজন কমাতে সাহায্য করে । তাছাড়া একটি জলপাইয়ে ৭ কিলোক্যালরি থাকে যা ঋণাত্মক ক্যালরি হিসেবে কাজ করে অর্থাৎ হজম করতে ক্যালরি বেশি খরচ হয়।
চোখের যত্নে ∶ জলপাই এ রয়েছে ভিটামিন এ । সংবেদনশীল চোখের জন্য জলপাই খুবই উপকারী । চোখ উঠা , চোখের পাতায় ইনফেকশন , এছাড়াও জীবানুর আক্রমন থেকে রক্ষা করে ।
স্মৃতিশক্তি বাড়াতে : জলপাইয়ে পলিফেনল পাওয়া যায় যা মস্তিষ্কের অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমায়। দৈনিক জলপাই গ্রহন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করতে পারে।
হাড়ের ক্ষয়রোধে: গবেষনায় প্রমানিত,নিয়মিত জলপাই ও জলপাইয়ের তেল গ্রহন করলে হাড়ের স্বাস্থ্য উন্নত হয়। এছাড়া বয়স্কদের অস্টিওপোরোসিস রোধে জলপাইয়ের ভূমিকা অনন্য।
ডায়বেটিস রোগীর ক্ষেত্রে∶ জলপাইয়ে অলিওরোপেইন নামক একটি উপাদান পাওয়া যায় যা অগ্ন্যাশয়কে ইনসুলিন নির্গমনের জন্য সিগন্যাল দেয়, রক্তের চিনির লেভেল এবং বিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে।

এছাড়াও জলপাই এ আছে প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও অ্যামাইনো এসিড। শুধু গোটা জলপাই-ই নয়,
জলপাইয়ের পাতা এবং তেলও শরীরের জন্য খুবই উপকারি। জলপাই হতে প্রাপ্ত তেলে আছে পুরো
তেলের ৭৪% অলেইক এসিড (একটি মনোআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি এসিড) যা হার্ট কে সুরক্ষিত রাখে ।
জলপাইয়ের পাতার রস উচ্চ রক্তচাপ,ডায়বেটিস, ক্যান্সার নিয়ন্ত্রণে অতুলনীয়। তাহলে, আর দেরি
কেন? দৈনন্দিন খাবারের তালিকায় কাঁচা জলপাইয়ের পাশাপাশি রান্নাতেও জলপাইয়ের তেল
ব্যবহার করুন, সুস্থ থাকুন।

লেখক  

সাদিয়া ইসলাম কাঞ্চি 

খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান 

সম্পাদনা

জান্নাতুল তাবাসসুম 

খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান 

999 total views, 2 views today

Any opinion ..?

Posted by pushtibarta

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *